1. abdulla914559@gmail.com : Abdullah Al Mamun : Abdullah Al Mamun
  2. info@vorerjanala.com : admin : মেহেদী হাসান রিয়াদ
  3. parvessarker122@gmail.com : Md Parves : Md Parves
  4. anarul.roby@gmail.com : সহকারী ডেস্ক :
  5. i.am.saiful600@gmail.com : Saiful Islam : Saiful Islam
  6. sailorinfotech@gmail.com : N H Nahid : N H Nahid
  7. nu356548@gmail.com : Nasiruddin Liton : Nasiruddin Liton
  8. billaldebidwar@gmail.com : MD Billal Hossain : MD Billal Hossain
  9. rustom.ali.ml@gmail.com : Rustom Ali : Rustom Ali
  10. cricket.sajib@gmail.com : Md. Sazib Mandal : Md. Sazib Mandal
  11. journalistsojibakbor01713@gmail.com : Sojib Akbor : Sojib Akbor
  12. subrotostudio35@gmail.com : Subroto Sorkar : Subroto Sorkar
দেবিদ্বার উপজেলার রাজামেহার ও চুলাশ বাজারে করোনা আতঙ্কে পণ্যদ্রব্যর মূল্য বৃদ্ধি ভোগান্তিতে সাধারণ জনগণ। » ভোরের জানালা ডট কম
সর্বশেষ
মনিগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের আয়োজনে জাতীয় শোক দিবস পালিত নাটোরের কলেজছাত্রকে বিয়ে করা সেই সহকারী অধ্যাপকের মরদেহ উদ্ধার ‘বঙ্গমাতা অদম্য উদ্যোক্তা’ অনুদান পেলেন সিলেট বিভাগের ১০ নারী জামালপুর জেলা স্টুডেন্টস এসোসিয়েশন চবির নতুন নেতৃত্বে শাহরিয়ার-শিশির লাইভস্টক সার্ভিস প্রোভাইডার (এল.এস.পি) কুমিল্লা জেলা শাখার সম্মেলন সন্দেহজনক ভাবে আটককৃত হৃদয়(বান্টি) নিরপরাধ | রাজনৈতিক কোন দলের সংশ্লিষ্টতা নেই গ্রিন ডেভেলপমেন্ট ও জ্বালানি সাশ্রয়ী আইসিটি অবকাঠামো তৈরিতে হুয়াওয়ের নতুন সল্যুশন সাংবাদিকরা হলেন জাতির বিবেক – সাংসদ এনামুল হক যুদ্ধে নামছে দেশবাংলা কক্সবাজারে ’দৈনিক দেশবাংলা’ পত্রিকার প্রতিনিধি সভা অনুষ্ঠিত

আজ

  • আজ শুক্রবার, ১৯শে আগস্ট, ২০২২ ইং
  • ৪ঠা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ (শরৎকাল)
  • ২০শে মুহররম, ১৪৪৪ হিজরী
  • এখন সময়, দুপুর ২:১৯

দেবিদ্বার উপজেলার রাজামেহার ও চুলাশ বাজারে করোনা আতঙ্কে পণ্যদ্রব্যর মূল্য বৃদ্ধি ভোগান্তিতে সাধারণ জনগণ।

  • প্রকাশের সময়: সোমবার, ২৩ মার্চ, ২০২০

বিল্লাল হোসেন, বিশেষ প্রতিনিধি:

করোনা ভাইরাসের উৎপত্তি দেশ চীন থেকে শুরু করে দক্ষিণ কোরিয়া, ইতালি, ইরান, ভারতসহ সারা বিশ্বে করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে মানুষ আতঙ্কিত হয়ে আছে।

বাংলাদেশ সরকার করোনা ভাইরাসে মানুষ সংক্রামিত যেন না হয় এবং প্রতিরোধের লক্ষে সারা দেশের জেলা ও উপজেলার প্রশাসনের ন্যায় দেবিদ্বার উপজেলা প্রশাসন স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা ও এতিমখানা সহ খাবার দোকান হোটেল, রেস্টুরেন্ট, চা-স্টল সহ অধিক সংখ্যক মানুষ জমায়েত হওয়া দোকান পাট ও সকল অনুষ্ঠান ১৭ই মার্চ -৩১ ই মার্চ পর্যন্ত বন্ধ রাখার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন। করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধিরা ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও সংস্থার সেচ্ছাসেবী কর্মীরা সচেতন মুলক লিফলেট ও মার্স্ক বিতরণ করছেন।

সেখানে করোনা ভাইরাসের ভয়ে কেউ যেন আতংকিত না হয় সেজন্য দেবিদ্বার উপজেলা প্রশাসন প্রতিরোধ মূলক প্রয়োজনীয় ব্যবস্হা নিয়েছে।

সেই সুযোগে উপজেলার ১১ নং রাজামেহার ইউনিয়নের রাজামেহার বাজার,চুলাশ বাজার, চাটুলী বাজার,সৈয়দপুর বাজার,১২ নং ভানী ইউনিয়নের বরাট নতুন বাজার,সাইতলা বাজার, সূর্যপুর বাজার,খিরাইকান্দি বাজারসহ অন্যান্য ইউনিয়নের বাজার গুলোতে অসাধু ব্যবসা-সম্পৃক্ত ব্যবসায়ীগন দ্বিগুন মূল্যতে পন্যদ্রব্য বিক্রির অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গত ২০ ই মার্চ রোজ শুক্রবার বিকালে ১১ নং রাজামেহার ইউনিয়নের চুলাশ বাজার ও রাজামেহার বাজারের চাউল প্রতি বস্তা বাবদ ৫০০-৬০০ টাকা বৃদ্ধি ও পেয়াজের মূল্য ৪০-৪৫ টাকার স্হলে ৮০-৯০ টাকা,ও অন্যান্য পন্যদ্রব্যর দ্বিগুন মূল্যে বিক্রি করার দায়ে চুলাশ বাজারের ব্যবসায়ী মোঃ কামরুল ইসলাম মোল্লা ও মোঃ জুয়েল কে ইউনিয়ন পরিষদ অস্হায়ী কার্যালয়ে হাজির হওয়ার জন্য মোঃ জাহাঙ্গীর আলম চেয়ারম্যান নির্দেশ করেন এবং উপস্থিত জনতার সামনে তাদেরকে কঠোর হুঁশিয়ারি দিয়ে পন্যদ্রব্যর মূল্য স্বাভাবিক রাখার নির্দেশ দেন। অসাধু ব্যবসায়ীদের নিকট পেঁয়াজ আমদানির মেমু চাওয়ায় দেখাতে ব্যর্থ হওয়ায় ব্যবসায়ীদেরকে ৪০ টাকা দরে পেঁয়াজ বিক্রির নির্দেশ দেন এবং আরো বলেছেন যদি করোনা ভাইরাসের আতঙ্কের সুযোগ নিয়ে পণ্যের মূল্য বাড়ানো হয় তাহলে তাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করাসহ প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান।

ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মোঃ জাহাঙ্গীর আলমের এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার কিছুক্ষণ পর সকল অসাধু ব্যবসায়ীরা সলাপরামর্শ করে দোকানে রাখা সকল পেঁয়াজ তাদের গোডাউনে এবং বাড়িতে লুকিয়ে ফেলেন। চারো দিকে মূল্যবৃদ্ধির সুর ফেলে তখন বাড়ি থেকে এনে দ্বিগুণ দামে পেঁয়াজ বিক্রি করবে এই বলে। সাধারণ জনগণ পন্যদ্রব্যর দ্বিগুন বৃদ্ধির কারনে এখন প্রায় দিশেহারা হয়ে উপজেলা প্রশাসনের নিকট অভিযোগ করলে ও উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোন আইনগত পদক্ষেপ না নেওয়ায় গভীর উদ্বেগ জানাচ্ছেন এলাকাবাসী।

চুলাশ বাজারের মুরগী ব্যবসায়ী আকাশ আলীসহ আরো কতেক ব্যক্তিরা বলেন কয়েকদিন পরপর মুদি দোকানদার মোহাম্মদ মোজাম্মেল হক মজনু সরকারের দোকানের বাহিরে রাখা খোলা সয়াবিন তেলের ড্রামের ভিতর বাজারের ৪-৫ টি কুকুর মুখ দিয়ে সয়াবিন তেল খাচ্ছে এবং আঁখের গুরের মধ্যে কুকুর গুলো মুখ দিয়ে চাঁটতে দেখে তাকে বারবার বলার পরও সে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে পণ্যদ্রব্য রাখার কোন পরিবর্তন করছেনা বলে জানান।

স্হানীয় স্থানীয় এলাকার বাউল শিল্পী মোঃ জাকির হোসেন বলেন রাজামেহার বাজারে পণ্য দ্রব্যের মূল্য দ্বিগুণ হারে বাড়িয়ে দিয়েছে মর্মে হেলপ্লাইন ১৬১২১ নাম্বারে কল দিলেও কোন ভূমিকা নেওয়া হয় নাই।

রাজামেহার গ্রামের বাহার উদ্দিন সরকার নামক এক ব্যক্তি বলেন বাজারের অসাধু ব্যবসা-সম্পৃক্ত ব্যবসায়ীগন চাউলের বস্তা প্রতি ৬০০ টাকা বেশি নিচ্ছে। এ জন্য উপজেলা নির্বাহি অফিসার কে অবগত করা হয়েছে ইউএনও স্যার ব্যবস্থা নেবেন বলে জানিয়েছেন কিন্তুু কোনো ফলপ্রসূ হয় নাই।
ফলে অসাধু ব্যবসায়ীগণ তাদের মনগড়া ভাবে পণ্যদ্রব্য বৃদ্ধি করেই যাচ্ছে।

এ দিকে সাধারণ দরিদ্র ও শ্রমিক পেশার,মেহনতী মানুষের দাবী বাংলাদেশ সরকার করোনা ভাইরাসের প্রতিরোধ মূলক কিছু পদক্ষেপ হিসেবে একএে বেশি জনসাধারন মানুষ জড়ো হওয়া দোকান পাট,হোটেল, রেস্টুরেন্ট,চা-স্টল ও কলেজ,স্কুল,মাদ্রাসা ও ব্যবসা বানিজ্য বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়ায় পন্যদ্রব্যর মূল্য আকাশচুম্ভী হয়ে গেছে। অসহায় খেটে খাওয়া দরিদ্র পরিবারের মানুষ গুলো জীবিকা নির্বাহ অনেক কষ্টের হয়ে গেছে।তার সাথে আরো আছে বিভিন্ন রকম এনজিও কিস্তির জ্বালা।
নিরীহ মানুষের আয়-রোজগারে ধসে পরায় দু -মুঠো ভাত খেতে পারেনা এনজিও গুলোর কিস্তি পরিশোধ করবে কি করে।তারা মাননীয় উপজেলা নির্বাহি অফিসারের নিকট অনুরোধ জানান যতদিন সরকারি নির্দেশনা মতে সব কিছু বন্ধের সাথে বিভিন্ন এনজিও প্রতিষ্ঠানের কিস্তি বন্ধ করার জন্য।

উল্লেখ্য, এলাকাবাসীর দাবী দেবিদ্বার উপজেলার সেনিটারী কর্মকর্তারা রাজামেহার ইউনিয়ন এর প্রত্যেকটি বাজারে মনিটরিং করতে এসে প্রত্যেক দোকান বাবদ ৩০০-৫০০ টাকা হারে টাকা উত্তোলন করে ভেজাল পণ্যদ্রব্যর সুষ্ঠু পরিদর্শন ও আইনগত ব্যবস্হা না নিয়ে দোকান প্রতি উঠানো টাকা নিয়ে চলে যাওয়ার কারনে অসাধু ব্যবসায়ীরা আমাদেরকে পঁচা ও নিম্নমানের মেয়াদোত্তীর্ণ খাদ্যদ্রব্য খাওয়াচ্ছে ফলে মেয়াদোত্তীর্ণ খাদ্যদ্রব্য খাওয়া মানুষগুলো রোগাক্রান্ত হচ্ছে এবং কঠিন রোগের সাথে যুদ্ধ করছেন এভাবে দিন দিন আমাদের মানব দেহে কঠিন রোগ বাসা বাঁধছে। উপজেলা প্রশাসনের নিকট আকুল আবেদন এই সমস্ত দুর্নীতিবাজ সেনিটারি কর্মকর্তাসহ করোনা ভাইরাসের আতংকের সুযোগে পন্যদ্রব্যর মূল্য দ্বিগুন বৃদ্ধি করা অসাধু ব্যবসায়ীদের কে আইনের আওতায় আনার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন।

সবার সাথে শেয়ার করুন

অন্যান্য সংবাদ পড়ুন

tv 21

  • এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
  • © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার ‘ভোরের জানালা ডট কম’ কর্তৃক সংরক্ষিত।
সাইট ডিজাইন এন্ড ডেভেলপ মেহেদী হাসান রিয়াদ - 01760-955268
error: এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।