1. abdulla914559@gmail.com : Abdullah Al Mamun : Abdullah Al Mamun
  2. info@vorerjanala.com : admin : মেহেদী হাসান রিয়াদ
  3. parvessarker122@gmail.com : Md Parves : Md Parves
  4. anarul.roby@gmail.com : সহকারী ডেস্ক :
  5. i.am.saiful600@gmail.com : Saiful Islam : Saiful Islam
  6. sailorinfotech@gmail.com : N H Nahid : N H Nahid
  7. nu356548@gmail.com : Nasiruddin Liton : Nasiruddin Liton
  8. billaldebidwar@gmail.com : MD Billal Hossain : MD Billal Hossain
  9. rustom.ali.ml@gmail.com : Rustom Ali : Rustom Ali
  10. cricket.sajib@gmail.com : Md. Sazib Mandal : Md. Sazib Mandal
  11. journalistsojibakbor01713@gmail.com : Sojib Akbor : Sojib Akbor
  12. subrotostudio35@gmail.com : Subroto Sorkar : Subroto Sorkar
৯ বছর পর মানসিক ভারসাম্যহীন মেয়েকে ফিরে পেলেন পরিবার » ভোরের জানালা ডট কম
সর্বশেষ
মনিগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের আয়োজনে জাতীয় শোক দিবস পালিত নাটোরের কলেজছাত্রকে বিয়ে করা সেই সহকারী অধ্যাপকের মরদেহ উদ্ধার ‘বঙ্গমাতা অদম্য উদ্যোক্তা’ অনুদান পেলেন সিলেট বিভাগের ১০ নারী জামালপুর জেলা স্টুডেন্টস এসোসিয়েশন চবির নতুন নেতৃত্বে শাহরিয়ার-শিশির লাইভস্টক সার্ভিস প্রোভাইডার (এল.এস.পি) কুমিল্লা জেলা শাখার সম্মেলন সন্দেহজনক ভাবে আটককৃত হৃদয়(বান্টি) নিরপরাধ | রাজনৈতিক কোন দলের সংশ্লিষ্টতা নেই গ্রিন ডেভেলপমেন্ট ও জ্বালানি সাশ্রয়ী আইসিটি অবকাঠামো তৈরিতে হুয়াওয়ের নতুন সল্যুশন সাংবাদিকরা হলেন জাতির বিবেক – সাংসদ এনামুল হক যুদ্ধে নামছে দেশবাংলা কক্সবাজারে ’দৈনিক দেশবাংলা’ পত্রিকার প্রতিনিধি সভা অনুষ্ঠিত

আজ

  • আজ বুধবার, ১৭ই আগস্ট, ২০২২ ইং
  • ২রা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ (শরৎকাল)
  • ১৮ই মুহররম, ১৪৪৪ হিজরী
  • এখন সময়, রাত ১০:৪৭

৯ বছর পর মানসিক ভারসাম্যহীন মেয়েকে ফিরে পেলেন পরিবার

  • প্রকাশের সময়: বৃহস্পতিবার, ৩১ অক্টোবর, ২০১৯

মহিউদ্দিন মিশু, আখাউড়া

৯ বছর আগে হারিয়ে যাওয়া মানসিক ভারসাম্যহীন মেয়ে মনিরা খানম বিথীকে (৩৫) ফিরে পেয়ে এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের সৃষ্টি হয়েছিল ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া ও ত্রিপুরার আগরতলা স্থলবন্দর নোম্যান্সল্যান্ডে।

হারিয়ে যাওয়া মেয়ে বিথী বুধবার দুপুরে ফিরে আসে মায়ের বুকে। বিথীর মা সাফিয়া বেগম বলেন, ২০১০সালে ভারসাম্যহীন মনিরা খানম বিথী নিখোঁজ হন। অনেক জায়গায় খোঁজাখুঁজি করেও সন্ধান পাওয়া যায়নি। তারপরও বিথীর আশা ছাড়েননি তার পরিবার। মাঝেমধ্যে নানা স্থানে খুঁজেছেন তাকে। অবশেষে ভারতের ত্রিপুরায় বাংলাদেশ সহকারী হাইকমিশন ও রাজ্যের মডার্ন সাইক্রেটিক হসপিটাল কর্তৃপক্ষের সহায়তায় পরিবার ফিরে পেলেন মানসিক ভারসাম্যহীন মনিরা খানম বিথীকে।

বুধবার দুপুর ১২ টা ০৯ মিনিট। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া স্থলবন্দর চেকপোস্ট সীমান্ত পথে ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের বাংলাদেশ সহকারী হাইকমিশনার কীরিটি চাকমা ও ত্রিপুরা রাজ্যের মডার্ন সাইক্রেটিক হসপিটালের চিকিৎসক ডা. জ্যোতিময় ঘোষ বাংলাদেশের সরাইল ২৫ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল গোলাম কবিরের কাছে বিথীকে হস্তান্তর করেন। তিনি নড়াইল জেলার লোহাগড়া উপজেলার পাচুয়া গ্রামের মৃত হিমায়েত খন্দকারের মেয়ে।

৯ বছর পর মেয়েকে কাছে পাওয়ার বাঁধভাঙা আনন্দে সকাল থেকেই আখাউড়া সীমান্তের নো-ম্যান্সল্যান্ডে অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছিলেন বিথীর মা সাফিয়া বেগম ও বড় বোন ববিতা খানম।বাংলাদেশ-ভারত দুই দেশের আইনি প্রক্রিয়া শেষে ত্রিপুরা রাজ্যের বাংলাদেশের সহকারী হাইকমিশনার কীরিটি চাকমা বিথীকে হস্তান্তরের জন্য নিয়ে সীমান্তের নো-ম্যান্সল্যান্ডে আসেন। এ সময় মা সাফিয়া ও বোন ববিতাকে দেখতে পেয়ে সীমান্ত রেখা ভুলে দৌঁড়ে গিয়ে জড়িয়ে ধরে মায়ের বুকে মাথা রেখে পরম আদরে চোখের জলে বুক ভাসালেন মেয়ে বিথী। মনিকা বিথী মাকে জড়িয়ে ধরে গালে মুখে চুম্বন করেন। মা-মেয়ের আদরের কান্নায় উপস্থিত সবার চোখ পানিতে ভিজে যায়।

ত্রিপুরা রাজ্যের বাংলাদেশ সহকারী হাইকমিশনার কীরিটি চাকমা বলেন, সে ২০১০ সালে তার বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়। তবে ২০১২ সালের ১২ মার্চ ত্রিপুরার ধলাই জেলার সালেমা থানা পুলিশ তাকে স্থানীয় একটি বাজারে মানসিক ভারসাম্যহীন পেয়ে রাজ্যের মডার্ন সাইক্রেটিক হসপিটালে নিয়ে যান।সেখানে সে ডা. জ্যোতিময় ঘোষের তত্বাবধানে এতোদিন চিকিৎসাধিন ছিলেন।

ত্রিপুরার রাজ্যের মডার্ন সাইক্রেটিক হসপিটালে ডা. জ্যোতিময় ঘোষ যুগান্তর কে বলেন, যখন তাকে হাসপাতালে আনা হয় তখন তার অবস্থা খুবই অসুস্থ ছিল। চিকিৎসা ও সেবা দেয়ার পর সে ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠে। এখন সে মুটামুটি অনেকটা ভালো। বিথী তার মা-বোনকে চিনতে পেরেছে। এখানেই আমাদের সার্থকতা। তবে তার জন্য আমাদের অনেক মায়া হচ্ছে।

বিথীর না সাফিয়া বেগম সাংবাদিকদের কাছে বলেন, তার হারানো মেয়েকে তার বুকে ফিরে পেতে যারা বিভিন্ন ভাবে সহায়তার হাত বাড়িয়েছেন সকালের নিকট তিনি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেছেন।

আখাউড়া-আগরতলা সীমান্তের নো-ম্যান্সল্যান্ডে বুধবার দুপুরে তাকে হস্তান্তরের সময় ২৫ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল গোলাম কবির ছাড়াও ত্রিপুরা রাজ্যের বাংলাদেশ সহকারী হাইকমিশনের ফাস্ট সেক্রেটারী মো. জাকির হোসেন ভূঁইয়া, সেকেন্ড সেক্রেটারী এসএম আসাদুজ্জামান, হাই কমিশনের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মো. আশিকুর রহমান, আখাউড়া উপজেলা প্রেসক্লাব সভাপতি মহিউদ্দিন মিশু, ইমিগ্রেশন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো.হামিদুর রহমান, বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের সাংগঠনিক সম্পাদক কবি সৈয়দ খায়রুল আলম উপস্থিত ছিলেন।

সবার সাথে শেয়ার করুন

অন্যান্য সংবাদ পড়ুন

tv 21

  • এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
  • © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার ‘ভোরের জানালা ডট কম’ কর্তৃক সংরক্ষিত।
সাইট ডিজাইন এন্ড ডেভেলপ মেহেদী হাসান রিয়াদ - 01760-955268
error: এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।