1. abdulla914559@gmail.com : Abdullah Al Mamun : Abdullah Al Mamun
  2. info@vorerjanala.com : admin : মেহেদী হাসান রিয়াদ
  3. parvessarker122@gmail.com : Md Parves : Md Parves
  4. anarul.roby@gmail.com : সহকারী ডেস্ক :
  5. i.am.saiful600@gmail.com : Saiful Islam : Saiful Islam
  6. sailorinfotech@gmail.com : N H Nahid : N H Nahid
  7. nu356548@gmail.com : Nasiruddin Liton : Nasiruddin Liton
  8. billaldebidwar@gmail.com : MD Billal Hossain : MD Billal Hossain
  9. rustom.ali.ml@gmail.com : Rustom Ali : Rustom Ali
  10. cricket.sajib@gmail.com : Md. Sazib Mandal : Md. Sazib Mandal
  11. journalistsojibakbor01713@gmail.com : Sojib Akbor : Sojib Akbor
  12. subrotostudio35@gmail.com : Subroto Sorkar : Subroto Sorkar
বাল্য বিবাহ প্রতিকার সম্বন্ধে সচেতনা মূলক ওঠান বৈঠক » ভোরের জানালা ডট কম
সর্বশেষ

আজ

  • আজ বুধবার, ১০ই আগস্ট, ২০২২ ইং
  • ২৫শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ (বর্ষাকাল)
  • ১১ই মুহররম, ১৪৪৪ হিজরী
  • এখন সময়, রাত ১২:৫৮

বাল্য বিবাহ প্রতিকার সম্বন্ধে সচেতনা মূলক ওঠান বৈঠক

  • প্রকাশের সময়: শনিবার, ১৬ নভেম্বর, ২০১৯

সুব্রত কুমার, বাঘা(রাজশাহী):

একটি সুস্থ জাতি পেতে প্রয়োজন একজন শিক্ষিত মা, বলেছিলেন প্রখ্যাত মনিষী ও দার্শনিক নেপোলিয়ন বোনাপার্ট। অথচ আজ এই একুশ শতকে এসেও বাংলাদেশের ৬৬% মেয়ে এখনো শিক্ষা থেকে বঞ্চিত, যার প্রধান কারণ বাল্যবিবাহ । আগামী প্রজন্মের সুস্থভাবে বেড়ে উঠা এবং সুনাগরিক হিসেবে গড়ে উঠতেও বাল্য বিবাহ একটি বড় বাধা।

আজ বাঘা উপজেলার বাল্য বিবাহ প্রতিকার সম্বন্ধে সচেতনা মূলক ওঠান বৈঠক করা হয়। আজ ১৬ই নভেম্বর শনিবার বিকেলে “মহদীপুর বেতার শ্রোতা সংঘ” কর্তৃক আয়োজিত বাল্য বিবাহ প্রতিকার সম্বন্ধে সচেতনা মূলক ওঠান বৈঠক করা হয়।

বাঘা উপজেলার মনিগ্রাম ইউনিয়নের ০২ নং ওয়ার্ড মহদীপুর (বান্ধাবটতলা) গ্রামে সেখানকার নিয়মিত শ্রোতাদের আহ্বনে ২০০০ সালে যাত্রা শুরু করে “মহদীপুর বেতার শ্রোতা সংঘ”। আর আজ তারই ধারাবাদিকতায় মহদীপুর বেতার শ্রোতা সংঘ বাল্য বিবাহ প্রতিকার সম্বন্ধে সচেতনা মূলক ওঠান বৈঠক করেন।

এসময় গ্রামের কিছু সচেতন ব্যক্তিরা বক্তব্য রাখেন, তারা বলেন সামাজিক সচেতনতা, দায়বদ্ধতা, বাল্য বিবাহ বন্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলা উচিত। বাংলাদেশে বাল্য বিবাহ একটি মারাত্মক সমস্যা। ইউনিসেফের শিশু ও নারী বিষয়ক প্রতিবেদনে অনুসারে বাংলাদেশের ৬৪% নারীর বিয়ে হয় ১৮ বছরের আগে।

অশিক্ষা, দারিদ্র, নিরাপত্তাহীনতা ও সামাজিক নানা কুসংস্কারের কারনে এ আইনের তোয়াক্কা না করে বাল্য বিবাহ হয়ে আসছে৷ বাল্য বিবাহের প্রধান কুফলঃ নারী শিক্ষার অগ্রগতি ব্যাহত হওয়া ছাড়াও বাল্য বিবাহের কারনে মাতৃমৃত্যুর ঝুঁকি বৃদ্ধি পাচ্ছে৷ মা হতে গিয়ে প্রতি ২০ মিনিটে একজন মা মারা যাচ্ছেন৷ অন্যদিকে প্রতি ঘন্টায় মারা যাচ্ছে একজন নবজাতক৷

নবজাতক বেঁচে থাকলেও অনেক সময় তাকে নানা শারীরিক ও মানষিক জটিলতার মুখোমুখি হতে হয়৷ অপ্রাপ্তবয়স্ক মা প্রতিবন্ধী শিশু জন্মদান করতে পারে৷ এছাড়া এতে গর্ভপাতের ঝুঁকিও বৃদ্ধি পায়৷ বাল্য বিবাহের ফলে বিবাহ বিচ্ছেদের আশংকা তৈরী হওয়া ছাড়াও নানা পারিবারিক অশান্তি দেখা দেয়৷

বাল্যবিবাহ প্রতিরোধের উপায়ঃ বাল্য বিবাহ নিরোধ আইনটি বাস্তবায়নে ব্যাপক প্রচার/প্রচারনা করা প্রয়োজন৷যারা বাল্য বিবাহে ইচ্ছুক তারা যে কোন উপায়ে জন্ম নিবন্ধনে মেয়ের বয়স টাকার বিনিময়ে বৃদ্ধি করে নেয়। এর ফলে আইনানুগ ব্যবস্থাও নেওয়া কঠিন হয়ে পড়ে। এক্ষেত্রে কিছু কাজীও দায়ী থাকে এবং এরা মেয়ের বয়স বৃদ্ধি দেখিয়ে বিয়ে দিতে বর এবং কনে পক্ষকে সহায়তা করে।

বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ করার জন্য জন্ম নিবন্ধন সনদ ব্যতীত কোন অবস্তুায়ই নিকাহ রেজিষ্টার যেন বিবাহ নিবন্ধন না করেন, সেরূপ আইন প্রণয়ন করা যেতে পারে৷ প্রতিটি ইউনিয়নে বাল্য বিবাহ প্রতিরোধ কমিটি গঠন করা যেতে পারে৷ নবম ও দশম শ্রেনীর পাঠ্য বইতে এ বিষয়টি অর্ন্তভুক্ত করা হলে এর সুফল পাওয়া যাবে৷

জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে বেসরকারী সংস্তুাগুলোও উল্লেখযোগ্য অবদান রাখতে পারে৷ শেষ কথাঃ সরকারের দিন বদলের অঙ্গীকার রয়েছে ২০২১ সালের মধ্যে শিশু মৃত্যুর হার প্রতি হাজারে ৫৪ থেকে কমিয়ে ১৫ করা হবে৷২০২১ সালের মধ্যে মাতৃ মৃত্যুর হার প্রতি হাজারে ৩.৮ থেকে কমিয়ে ১.৫ করা হবে৷

বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ করা না গেলে এই লক্ষ্যমাত্রা অর্জন সম্ভব হবে না৷ বাল্য বিবাহ সংকুচিত করে দেয় কন্যা শিশুর পৃথিবী৷ আমরা যদি সবাই সচেতন হই তাহলে কন্যা শিশুদের অধিকার প্রতিষ্ঠা হবে৷ দেশে মা ও শিশুর অকাল মৃত্যু রোধ করা সম্ভব হবে৷ তাই বাল্য বিবাহ বন্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে৷

এছাড়াও মোঃ এনারুল ইসলাম রবি বলেন যৌতুক ও বাল্য বিবাহের কুফল এবং মাদক বিরোধী সচেতনতা মূলক প্রচারনার অংশ হিসাবে মোহদীপুর বেতার শ্রোতা ক্লাবের আয়োজনে সচেতনতা মূলক বক্তব্য রাখেন। পরে রেডিও বড়ালের কার্যক্রম ও সম্প্রচার সম্পর্কে শ্রোতাসংঘের সদস্যদের সম্যক ধারনা প্রদান করেন রেডিও বড়াল শ্রোতা সংঘ গঠন ও টিউনিং ক্যাম্পেইনের কন্ট্রিবিউটর অর্গানাইজার জনাব মশিউর রাকিব, জনাব মাসুদ রানা, সহকারী সংবাদ প্রযোজক বিশ্বনাথ দাশ।

সবার সাথে শেয়ার করুন

অন্যান্য সংবাদ পড়ুন

tv 21

  • এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
  • © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার ‘ভোরের জানালা ডট কম’ কর্তৃক সংরক্ষিত।
সাইট ডিজাইন এন্ড ডেভেলপ মেহেদী হাসান রিয়াদ - 01760-955268
error: এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।