ভোরের জানালা

জনগণের কল্যাণে অগ্রদূত

কুমিল্লায় আওয়ামীলীগ নেতার বক্তব্যের ভিডিও ভাইরাল, ভোটে আমরা হারিনি ম্যাকানিজম করে হারানো হইছে

1 min read

দেবিদ্বার (কুমিল্লা) প্রতিনিধি। 

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করে কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক রোশন আলী মাস্টারের একের পর এক বিতর্কিত বক্তব্য যেন থামছেই না। নতুন করে তাঁর সাড়ে চার মিনিটের একটি বক্তব্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে পড়েছে। ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিও বক্তব্যে তাকে বলতে শোনা গেছে, ভোটে আমরা হারিনি, ম্যাকানিজম করে হারানো হইছে, যেকোন কারণে আমরা রেজাল্ট নিতে পারেনি, ৮২ হাজার ভোট কি কম ? এগুলোর অনেক ইতিহাস, এগুলো আপনারা বুঝবেন না, আপনাদের ভাইঙা বুঝাইতে অইব’। যাদেরকে আমি নেতা বানাইছি তারা আমারে এখন চেট (আঞ্চলিক গালি) দিয়াও গনে না। আমাদের দলে অনেক মীর জাফর আছে, এগুলো যুগ যুগ ছিল থাকবে, তারা যদি ভালো হয়ে যায় আমরাও ভালো হইয়া যাইবো, আর হজ্ব থেকে এসে যদি দেখি ভালো হয় নাই তাহলে মাঠে নাইম্যা পড়ব। 

শনিবার (৩০ মার্চ) বিকালে রোশন আলী মাস্টার ওমরা হজ্ব পালনের উদ্দ্যেশে মক্কায় গমণ উপলক্ষে দেবিদ্বার পৌর এলাকার তাঁর নিজ বাসভবনে একটি ইফতার মাহফিলে ওই বিতর্কিত বক্তব্য রাখেন তিনি। ওই সময়ে উপস্থিত ছিলেন সাবেক সংসদ সদস্য রাজী মোহাম্মদ ফখরুল। 

 তাঁর এ বিতর্কিত বক্তব্যে তাৎক্ষনিক ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন দেবিদ্বার উপজেলা আওয়ামীলীগের তৃণমূল নেতা-কর্মীরা। প্রতিক্রিয়ায় তাঁরা বলেছেন, যেখানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী একটি অবাধ,সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভোট করে সারা বিশ্বে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন সেখানে তাঁর ওই বক্তব্য সুষ্ঠু নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে। তার ওই বক্তব্যে বর্তমান সংসদ সদস্য মো. আবুল কালাম আজাদ ভোট কারচুপির মাধ্যমে নির্বাচিত হয়েছেন এটা তিনি প্রমাণ করতে চেয়েছেন। আমরা অবিলম্বে এমন বক্তব্য প্রতাহ্যারের দাবি জানাচ্ছি, পাশাপাশি তাকে কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদকের পদ থেকেও অব্যাহতির দাবি জানাচ্ছি। 

দেবিদ্বার উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ হুমায়ুন কবীর বলেন, তাঁর লাগামহীন এসব বক্তব্যে সাধারণ মানুষের কাছে আওয়ালীগ হাস্যরসে পরিণত হচ্ছে। তাকে কেউ থামাতেই পারছে না। এর আগে দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনের বিভিন্ন সভায় তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী ও তাঁর নেতাকর্মীদের গালিগালাজ করেও বক্তব্য রেখে বিতর্কিত হয়েছেন, যা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সবাই দেখেছেন। এর আগে বিএনপির এক নেতার সাথে তার ফোনালাপ ফাঁস হয়। ওই ফোনালাপে তাকে বলতে শোনা গেছে, ‘আওয়ামীলীগ ও নৌকা যারা করে তারা সব রাজাকারের বাচ্চা’’ তার এসব বক্তব্যে কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের নেতারাও বিব্রত। আসলে তিনি মাইক হাতে পেলে কি বক্তব্যে দিবেন হিতাহিত জ্ঞান হারাই ফেলেন ! 

এ বিষয়ে কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক রোশন আলী মাস্টারকে একাধিকবার ফোন করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

প্রসঙ্গত, ২০২১ সালের ২৭ ডিসেম্বর তাঁর সাথে বিএনপি নেতা দেবিদ্বার উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মো. রহুল আমিনের একটি অডিও ফোনালাপ ফাঁস হলে সারা দেশে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। ওই অডিও কলে তাকে বলতে শোনা গেছে, ‘যারা নৌকা করে তাঁরা সব রাজাকারের বাচ্চা’। তাঁর শেল্টার নিয়ে বিএনপি যেন আন্দোলন সংগ্রামে মাঠে নামে সে কথাও বলতে শোনা গেছে। এর প্রতিবাদে সাবেক সংসদ সদস্য রাজী ফখরুলের নেতা কর্মীরা রোশন আলীর মাস্টারের পদত্যাগের দাবিতে ঝাঁড়ু ও জুতা মিছিল এবং তার কুশপুত্তলিকা দাহ করে।

Please follow and like us:
স্বত্ব © ২০২৪ ভোরের জানালা | Developed by VJ IT.
Translate »