ভোরের জানালা

জনগণের কল্যাণে অগ্রদূত

সনাক বগুড়ার আয়োজনে আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালিত

1 min read

মাসুম বিল্লাহ, শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ
‘আন্তর্জাতিক নারী দিবস’ ২০২৪ উপলক্ষ্যে টি আই বির এর অনুপ্রেরণায় গঠিত সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক) বগুড়া’র আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয়।

আজ ৭ই মার্চ সকাল ১১:৩০ টায় আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষ্যে ‘নারীর সমঅধিকার, সমসুযোগ- এগিয়ে নিতে হোক বিনিয়োগ’ এই প্রতিপাদ্য কে সামনে রেখে সনাক বগুড়ার আয়োজনে ও বগুড়া মহিলা কলেজ এর সহযোগিতায় অত্র কলেজের হলরুমে আলোচনা সভা ও বক্তৃতা প্রতিযোগীতা আয়োজিত হয়।

বিশ্বব্যাপি সমতাভিত্তিক সমাজ-রাষ্ট্র গড়ার প্রত্যয়ে প্রতিবছর এই দিবসটি উদযাপন করা হয়। ১৯১০ সালের ৮ মার্চ নিউইয়র্কের সেলাই কারখানার নারী শ্রমিকদের আন্দোলনের প্রতি সম্মান জানাতে ৮ মার্চ আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালন করা হয়ে থাকে। জাতিসংঘ ১৯৭৫ সাল থেকে ৮ মার্চ আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালন শুরু করে।

আলোচনা সভায় সভাপতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অত্র কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ মোকাব্বর হোসেন। এছাড়াও আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হোসনেয়ারা হায়দার, সনাক সদস্য ও সাবেক অধ্যক্ষ, সরকারি শাহ সুলতান কলেজ এবং শুভাশীষ পোদ্দার লিটন, সভাপতি কলেজ পরিচালনা পর্ষদ ও পরিচালক, বিআরটিসি । অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সনাক সভাপতি মাছুদার রহমান হেলাল সহ অন্যান্য সনাক সদস্যগন।

সেমিনারে দিবসটির মূল প্রতিপাদ্য “নারীর সমঅধিকার, সমসুযোগ- এগিয়ে নিতে হোক বিনিয়োগ” এর উপর শিক্ষার্থীদের উপস্থিত বক্তৃতা প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়াদের বক্তৃতা শোনা হয়।

এরপর আলোচনা অংশে প্রথমেই বক্তব্য রাখেন জনাব,
শুভাশীষ পোদ্দার লিটন। তিনি ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের দিনগুলো স্মরণের সাথে নারীদের জাগরণের কথা উল্লেখ করেন।

আলোচনার পরবর্তী অংশে অন্যতম সনাক সদস্য জনাব, হোসনেয়ারা হায়দার। তিনি একটি প্রবন্ধের মাধ্যমে বর্তমান সমাজের নারীদের চিত্র তুলে ধরেন এবং নারীদের চ্যালেঞ্জ নিয়েও আলোচনা করেন।

এরপর আলোচনায় সনাক সহ সভাপতি জনাব, নাসিমা আখতার জাহান একটি তথ্যনির্ভর প্রবন্ধ উপস্থাপন করে তিনি বলেন, টেকসই উন্নয়নের জন্য নারী পুরুষের সমানতা (equality) এর চেয়ে সমাজে সমতা (equity) প্রতিষ্ঠিত হওয়া প্রয়োজন। এছাড়াও নারীদের উপর জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব নিয়ে বিভিন্ন তথ্য-উপাত্ত তুলে ধরেন । এক্ষেত্রে তিনি বলেন জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায় নারীদের সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার দেয়া দরকার। তিনি বলেন এসডিজি’র লক্ষ্য বাস্তবায়নে নারী-পুরুষের সমতার কথা বলা হয়েছে। নারী-পুরুষের সমতা ছাড়া টেকসই উন্নয়ন সম্ভব না।

আলোচনার শেষ পর্যায়ে সনাক সভাপতি জনাব, মাছুদার রহমান বলেন, বাংলাদেশের জাতীয় বাজেট প্রণয়নকালে জেন্ডার বিষয়টি প্রাধান্য পেয়ে থাকে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ১০টি বিশেষ উদ্যোগের মধ্যে একটি হলো নারীর ক্ষমতায়ন এবং এ বিষয়ে তিনি বিস্তারিত আলোকপাত করেন।

এরপর আলোচনা সভার সভাপতি জনাব, মোকাব্বর হোসেন সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

Please follow and like us:
স্বত্ব © ২০২৪ ভোরের জানালা | Developed by VJ IT.
Translate »