1. abdulla914559@gmail.com : Abdullah Al Mamun : Abdullah Al Mamun
  2. info@vorerjanala.com : admin : মেহেদী হাসান রিয়াদ
  3. parvessarker122@gmail.com : Md Parves : Md Parves
  4. anarul.roby@gmail.com : সহকারী ডেস্ক :
  5. i.am.saiful600@gmail.com : Saiful Islam : Saiful Islam
  6. sailorinfotech@gmail.com : N H Nahid : N H Nahid
  7. nu356548@gmail.com : Nasiruddin Liton : Nasiruddin Liton
  8. billaldebidwar@gmail.com : MD Billal Hossain : MD Billal Hossain
  9. rustom.ali.ml@gmail.com : Rustom Ali : Rustom Ali
  10. cricket.sajib@gmail.com : Md. Sazib Mandal : Md. Sazib Mandal
  11. journalistsojibakbor01713@gmail.com : Sojib Akbor : Sojib Akbor
  12. subrotostudio35@gmail.com : Subroto Sorkar : Subroto Sorkar
দেবীদ্বারে হোম কোয়ারেন্টাইনে ৯২, মুক্ত ৩জন » ভোরের জানালা ডট কম
সর্বশেষ
মনিগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের আয়োজনে জাতীয় শোক দিবস পালিত নাটোরের কলেজছাত্রকে বিয়ে করা সেই সহকারী অধ্যাপকের মরদেহ উদ্ধার ‘বঙ্গমাতা অদম্য উদ্যোক্তা’ অনুদান পেলেন সিলেট বিভাগের ১০ নারী জামালপুর জেলা স্টুডেন্টস এসোসিয়েশন চবির নতুন নেতৃত্বে শাহরিয়ার-শিশির লাইভস্টক সার্ভিস প্রোভাইডার (এল.এস.পি) কুমিল্লা জেলা শাখার সম্মেলন সন্দেহজনক ভাবে আটককৃত হৃদয়(বান্টি) নিরপরাধ | রাজনৈতিক কোন দলের সংশ্লিষ্টতা নেই গ্রিন ডেভেলপমেন্ট ও জ্বালানি সাশ্রয়ী আইসিটি অবকাঠামো তৈরিতে হুয়াওয়ের নতুন সল্যুশন সাংবাদিকরা হলেন জাতির বিবেক – সাংসদ এনামুল হক যুদ্ধে নামছে দেশবাংলা কক্সবাজারে ’দৈনিক দেশবাংলা’ পত্রিকার প্রতিনিধি সভা অনুষ্ঠিত

আজ

  • আজ শুক্রবার, ১৯শে আগস্ট, ২০২২ ইং
  • ৪ঠা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ (শরৎকাল)
  • ২০শে মুহররম, ১৪৪৪ হিজরী
  • এখন সময়, দুপুর ২:৩৭

দেবীদ্বারে হোম কোয়ারেন্টাইনে ৯২, মুক্ত ৩জন

  • প্রকাশের সময়: রবিবার, ২৯ মার্চ, ২০২০

এবিএম আতিকুর রহমান বাশার:

করোনা সংক্রামণ থেকে মানুষকে নিরাপদে রাখায় সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে এবং সতর্কতামূলক ব্যবস্থা বজায় রাখতে দেবীদ্বারে স্থানীয় প্রশাসনের সাথে সেনা বাহিনীন সদস্যরাও কাজ করে যাচ্ছেন। শনিবার দিন ব্যাপী নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার শাহিদা আক্তার’র নেতৃত্বে এবং সেনা বাহিনীর ক্যাপ্টেন সাইদ’র নেতৃত্বে এক প্লাটুন সেনা সদস্য উপজেলার বিভিন্ন হাট বাজার বাস ও সিএনজি চালিত অটো রিক্সা ষ্ট্যাশনগুলোতে হ্যান্ড মাইক যোগে করোনা সংক্রামণ থেকে মানুষকে নিরাপদে রাখায় বিভিন্ন সতর্কতামূলক পরামর্শ প্রদান করতে দেখা যায়।

সারা দেশের ন্যায় দেবীদ্বারেও করোনা সংক্রামন থেকে মানুষকে নিরাপদে রাখায় সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে এবং সতর্কতামূলক ব্যবস্থার বজায় রাখতে সশস্ত্র বাহিনী উপজেলা প্রশাসনকে সহায়তাদানের লক্ষ্যে বৃহস্পতিবার থেকে কাজ শুরু করেছেন। এ সময় বিদেশ থেকে ফেরত আসা ব্যক্তির অবস্থান নির্ণয় ও তাদের নিজ নিজ অবস্থানে কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করাই হবে সেনাবাহিনীর মূল ল্য। জেলা প্রশাসনের সাথে সমন্বয় রেখে উপজেলা পর্যায়ে একজন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের চাহিদা মোতাবেক ও তার নেতৃত্বে সেনাবাহিনী কাজ করছেন।

এর আগে ২৪ এপ্রিল থেকে জেলা পর্যায়ে সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। তারা জেলা প্রশাসনের সমন্বয়ে উপজেল প্রশাসনের সাথে কাজ করে যাচ্ছেন। এরই মধ্যে করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে সকল সরকারী- বেসরকারী অফিস আদালত ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। ২৬ মার্চ উপলে সরকারি ছুটির সঙ্গে ২৯ মার্চ থেকে  ২ এপ্রিল মোট ৫ দিন যুক্ত করে ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। এর সঙ্গে ৩ ও ৪ এপ্রিল সরকারি সাধারণ ছুটিও যুক্ত হবে। অর্থাৎ ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল মোট ১০ দিন ছুটি থাকবে। এর আগে ৩১ মার্চ পর্যন্ত সকল স্কুল কলেজ বন্ধ ঘোষণা করে দেয়া হয়েছিল। ১ এপ্রিল থেকে  উচ্চ মাধ্যমিক ও সমমানের পরীা হওয়ার কথা থাকলেও তা স্থগিত করা হয়েছে।

সরকার এলক্ষ্যে কাঁচাবাজার, মুদী দোকান, ফার্মেসী আইনশৃংখলা রাকারী বাহিনীর তদারকী ও হাসপাতাল সহ জরুরি সেবা বিভাগগুলো (হাসপাতাল, থানা, ফায়ার সার্ভিস, বিদ্যুৎ বিভাগ) এই ঘোষণার আওতা মুক্ত থাকবে বলে ঘোষণা করেছেন।

এগুলোর মধ্যে উপজেলার করোনা পরিস্থিতির ওপর প্রস্তুতি মূল্যায়ন এবং এ অবস্থার পরিপ্রেেিত সেনাবাহিনীর প্রয়োজন ও ত্রেগুলো চিহ্নিত করা। উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে গত ১৫মার্চ থেকে বিদেশ থেকে আসা ব্যক্তিদের পরিসংখ্যান ও বিস্তারিত তথ্য। উপজেলায় সেলফ কোয়ারেন্টিনের জন্য নির্বাচিত ব্যক্তিদের পরিসংখ্যান। সেলফ কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করতে উপজেলা প্রশাসনের নেওয়া পর্যবেণ পদ্ধতি। সেলফ কোয়ারেন্টিনের জন্য নির্বাচিত ব্যক্তিদের মধ্যে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না, এমন ব্যক্তিদের পরিসংখ্যান। কোয়ারেন্টাইন কর্মসূচি নিশ্চিত করতে আইনশৃঙ্খলা রাকারী বাহিনী ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সম্পৃক্ত করার ত্রেগুলো এবং দায়িত্বে যেসব ব্যক্তি থাকবেন তাদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পারসোনাল প্রোটেক্টিভ ইকুইপমেন্ট (পিপিই) সংখ্যা ঠিক করার কথা রয়েছে।

এদিকে জেলা ও রাজধানী শহর থেকে গ্রামে আসা ছেলে মেয়েরা নিয়ম মানছেনা, পাড়া- মহল্লায় তাদের দল বেঁধে সকাল বিকেলে মাঠে খেলা ধূলায় মত্ত থাকতে দেখা যায়। এ বিষয়ে প্রশাসনেরও কোন নজরধারী নেই। গ্রামে গঞ্জের হাট বাজারের অবস্থা একই। করোনার ভয়াবহতা নিয়ে কারোর যেন কোন মাথা ব্যথা নেই।

তবে দেবীদ্বারে এ পর্যন্ত (২৮মার্চ পর্যন্ত) গত এক মাসে আগত প্রায় এক হাজার প্রবাসীর মধ্যে হোম কোয়ারেন্টিনে ৯২জনকে তালিকায় আনা হয়েছে। এদের মধ্যে ৩জন ন্যাগেটিভ হওয়ায় তাদের ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

দেবীদ্বার উপজেলা সদরের অধিকাংশ দোকান পাঠ বন্ধ থাকলেও কাঁচা বাজার এলাকায় লোক সমাগম থাকে লক্ষনীয়। তবে সাধারন মানুষ করোনা কি ? তার ভয়াবহতা সম্পর্কে এখনো অজ্ঞতায় ডুবে আছে। তারা বুঝে সরকার তাদের রুটি রুজীব উপর আঘাত করছে। করোনার চেয়ে তারা ক্ষুধাটকেই গুরুত্ব দিচ্ছেন। তারা মনে করেন, করোনার আঘাতের চেয়ে পরিবারের ভরন পোষনের আঘাটা অনেক কঠিন। নিন্ম আয়ের দরিদ্র মানুষ মনে করেন, সরকারের সদিচ্ছা থাকলে দরিদ্র মানুষগুলোর জন্য রেশনিং ব্যবস্থা এবং আপদকালীন সময়ের জন্য খাদ্য সরবরাহ করতে পারতেন। তা না করে আমাদের ভীতিপ্রদর্শনে পিটিয়ে ঘরমূখী করতে চাচ্ছেন। আমরা খাদ্যের নিশ্চয়তা পেলে কষ্ট করে ঘর থেকে বের হব কেন ? ঘরে তো কায়িক পরিশ্রম ছাড়া আরামে থাকতে পারতাম। ক্ষুধার যন্ত্ররাই আমাদের রাস্তায় বের করে আনে।

এদিকে সাধারন রোগীরা বিশেষ করে সর্দি, কাসি, জ্বর, শ্বাস কষ্টের রোগীরা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কোন সেবা পাচ্ছেননা বলে অভিযোগ রয়েছে। চিকিৎসা সেবা না পাওয়ার কারন হিসেবে চিকিৎসকরা বলেন, আমরা নিজেরাই করোনার ঝুকিতে আছি, আমাদের পারসোনাল প্রোটেক্টিভ ইকুইপমেন্ট (পিপিই) নাই, নিরাপত্তাহীন অবস্থায় কি ভাবে চিকিৎসা সেবা দেই। সরকার এখনো মাঠ পর্যায়ে পিপিই’র ব্যবস্থা করে নাই।

দেবীদ্বার পৌর প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাকিব হাসান বলেন, আমাদের দেশে সকল স্থানে সকল দোকান পাঠ করোনা ভাইরাসের সংক্রামন যেন বৃদ্ধি করতে না পারে সেই লক্ষ্যে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে, এই মাধ্যমে আমাদের খেটে খাওয়া মানুষেরাই তাদের দৈনিন্দন কাজ না থাকায় তারা বেকার হয়ে পড়েছে। অনেকের খাদ্য সংকট হয়েছে। আমরা যেন কোন মানুষ খাদ্যের অভাবে না থাকে ঠিক লক্ষ্যে আমাদের মাননীয় সংসদ সদস্য মহোদয়ের সহযোগীতায় দেবীদ্বার পৌরসভার অত্রয়নে আমরা ইতিমধ্যে ১০০ খেটে খাওয়া পরিবারের মাঝে ১০ কেজি চাউল,  ২কেজি আলু  ১কেজি মসুর ডাল ও আধা কেজি লবন করে দিয়েছি। এ ধারা আগামী কয়েকদিন দরিদ্র জনগোষ্ঠীর জন্য অব্যাহত থাকবে। ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে বাকীদের তালিকা করতেছি। তাদেরও সহযোগীতার ব্যবস্থা হবে।

দেবীদ্বার নিউমার্কেট মাজেদ ম্যানশনের সেলন কর্মচারী দিপক বলেন, আমাদের তালিকা করা হয়েছে। আমার দোকানে ৪জন কর্মচারী প্রশাসনের পক্ষ থেকে আমাদের খাদ্য সামগ্রী দেয়া হবে। আমরা সন্ধ্যার পর পর্যন্ত অপেক্ষ করার পর একটি প্যাকেট দিয়ে যান। ওই প্যাকেটে ১০ কেজি চাউল,  ২কেজি আলু  ১কেজি মসুর ডাল ও আধা কেজি লবন রয়েছে। আমরা ৪জন ওই সামগ্রী দিয়ে কি করব ? প্রত্যেকেরই একটি পরিবার ভাগ করে নিলে এক বেলাও হবেনা।

কাঁচামাল বিক্রেতা মোঃ মিন্টু মিয়া জানান, সরকার আমাদের ব্যবসা করার উপর নিষেধাজ্ঞা রাখেন নাই, স্থানীয় প্রশাসনও বলছেন, কিন্তু মাঝে মাঝে পুলিশ এসে আমাদের উপর হামলা করে, গত শুক্রবার আমাকে পিটিয়ে আমার হাতের আঙ্গুল ফাটিয়ে দেয়। আমরা কি করব ?

সবার সাথে শেয়ার করুন

অন্যান্য সংবাদ পড়ুন

tv 21

  • এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
  • © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার ‘ভোরের জানালা ডট কম’ কর্তৃক সংরক্ষিত।
সাইট ডিজাইন এন্ড ডেভেলপ মেহেদী হাসান রিয়াদ - 01760-955268
error: এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।