1. info@vorerjanala.com : admin : মেহেদী হাসান রিয়াদ
  2. parvessarker122@gmail.com : Md Parves : Md Parves
  3. anarul.roby@gmail.com : সহকারী ডেস্ক :
  4. i.am.saiful600@gmail.com : Saiful Islam : Saiful Islam
  5. billaldebidwar@gmail.com : MD Billal Hossain : MD Billal Hossain
  6. rustom.ali.ml@gmail.com : Rustom Ali : Rustom Ali
  7. cricket.sajib@gmail.com : Md. Sazib Mandal : Md. Sazib Mandal
  8. subrotostudio35@gmail.com : Subroto Sorkar : Subroto Sorkar
সব সরকারি পাটকল বন্ধ: পাটের ন্যায্য দাম নিয়ে শঙ্কিত চারঘাটের কৃষকরা » ভোরের জানালা ডট কম
সর্বশেষ
সেই শারমিন আর নেই! বাংলা নববর্ষ ও মাহে রমজানের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম ফেইক ফেইসবুক আইডির মালিক শনাক্ত করে থানায় মামলা; এরই জেড় ধরে চেয়ারম্যান পুত্রের উপর হামলা সাংবাদিক নিয়োগ নীতিমালা নেই বলেই জনকন্ঠ রক্ত ঝড়ালো: বিএমএসএফ সাতানী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের উদ্যোগে তিতাস উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতির জন্মদিন পালিত জগতপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের উদ্যোগে তিতাস উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতির জন্মদিন পালিত আনসার সদস্য নিহতের  জড়িত বন্ধু মাধব কে গ্রেপ্তার রাজশাহীতে ছুরিকাঘাতে আনসার সদস্য হত্যা করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা দিলেন খালেদা জিয়া করোনায় একদিনে সর্বোচ্চ ৭৭ জনের মৃত্যু

আজ

  • আজ বুধবার, ১৪ই এপ্রিল, ২০২১ ইং
  • ১লা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ (গ্রীষ্মকাল)
  • ১লা রমজান, ১৪৪২ হিজরী
  • এখন সময়, সকাল ৮:০০

সব সরকারি পাটকল বন্ধ: পাটের ন্যায্য দাম নিয়ে শঙ্কিত চারঘাটের কৃষকরা

  • প্রকাশের সময়: বৃহস্পতিবার, ৩০ জুলাই, ২০২০
  • ৩০৫ দেখেছেন

মোঃ তারিক হোসেনঃ চারঘাট ( রাজশাহী ) প্রতিনিধিঃ রাজশাহী চারঘাটে করোনা কালে ভিন্ন এক বাস্তবতায় ক্ষেত থেকে পাট উঠতে শুরু করেছেন কৃষকরা গত বছর কৃষক গড়ে প্রায় দুই হাজার টাকা মণপ্রতি পাটের দর পেয়েছে। আগামী সপ্তাহেই হাটে নতুন পাট উঠতে শুরু করবে। পাটের পরিমাপ সাধারণত বেল আকারে করা হয়। ১৫০ কেজিতে এক বেল গণনা করা হয়। সরকার প্রতি বছর গড়ে ১৩ লাখ বেল পাট কিনে থাকে। কিন্তু ইতোমধ্যে দেশের সব সরকারি পাটকল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই সরকারি পাটকল আর পাট কিনবে না।

বরং ওসব মিলের হাতে থাকা মজুদ পাট বিক্রি করতে হবে। এমন অবস্থায় কৃষক কোথায় পাট বিক্রি করবে। আর বেসরকারি পাটকলগুলোই কতটুকু পাট কিনবে? এমন পরিস্থিতিতে পাটের ন্যায্য দাম নিয়ে শঙ্কায় ভুগছে কৃষকরা। চারঘাট উপজেলার একজন কৃষক মোঃ হযরত আলী,বলেন সরকার এবার পাট কিনবে না শুনেই পাটচাষীদের রাতের ঘুম হারাম হয়ে গেছে। কারণ বেসরকারি উদ্যোক্তারা গতবারের তুলনায় এবার বেশি করে পাট না কিনলে দাম পড়ে যাবে। ইতোমধ্যে হাটেও পাট নিয়ে যাচ্ছে কেউ কেউ। কিন্তু সরকারি পাটকল বন্ধ থাকায় বাজারে পাটের দাম কম।

পাশাপাশি করোনার কারণে পাট কাটা ও আঁশ ছাড়ানোর জন্য লোক পাওয়া যাচ্ছে না। সেজন্য অন্য বছরের তুলনায় উৎপাদনের খরচও বেশি হচ্ছে। প্রতিবিঘা পাট উৎপাদনে বীজ, সার, ওষুধ, সেচ, পাট কাটা ও পাটের আঁশ ছাড়ানো দিয়ে মোট ব্যয় আছে ১৫ হাজার থেকে ২০ হাজার টাকা। বিঘাপ্রতি পাট উৎপাদন ৯ থেকে ১০ মণ। পাটের দরের সঙ্গে হিসাব করলে খুব বেশি লাভ হয় না। তার ওপর যদি সরকার পাট না কিনে তাহলে কষ্টের সীমা থাকবে না। বর্তমানে বাজারে পাটের চাহিদা কম। দুই হাজার টাকার বেশি দর পাওয়া যাচ্ছে না। গত বছর মণপ্রতি দুই হাজার ৬০০ টাকা পর্যন্ত দর পেয়েছে চাষীরা। এবার প্রতি মণ পাটের মূল্য কমপক্ষে ৩ হাজার টাকা হলে চাষীরা কিছুটা লাভবান হতো।

চারঘাট উপজেলার, কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা,জনাব খন্দকার ফিরোজ মাহমুদ, জানান,তবে কৃষক যাতে ন্যায্য দর থেকে বঞ্চিত না হয় সে ব্যাপারে সতর্ক আছে সরকার। সরকার পাট না কিনলেও পাট বিক্রি ও রপ্তানির অনেক পথ রয়েছে। পরিস্থিতির ওপর নজর রাখা হচ্ছে। তবে খুব প্রয়োজন মনে করলে সরকার কিনতেও পারে। সরকারি পাটকলগুলোর গুদাম খালি পড়ে আছে।

সবার সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

অন্যান্য সংবাদ পড়ুন
  • এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
  • © সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার ‘ভোরের জানালা ডট কম’ কর্তৃক সংরক্ষিত।
সাইট ডিজাইন এন্ড ডেভেলপ মেহেদী হাসান রিয়াদ - 01760-955268
error: দুঃখিত, আপনি আমাদের নিউজ চুরি করতে পারবেন না। ধন্যবাদ।